টমটম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

টমটম হচ্ছে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল, বিশেষত: রাজধানী ঢাকা শহরের পুরানো এলাকায় পরিবহণ কাজে ব্যবহৃৎ ঘোড়ায় টানা গাড়ির পরিচিত নাম।[১][২] বাংলাদেশের বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় এটি আজও বেশ প্রচলিত একটি অযান্ত্রিক বাহণ। প্রাপ্ত তথ্যানুসারে, ১৮৫৬ সালে সর্বপ্রথম ঢাকা শহরে ঘোড়ার গাড়ির প্রচলন ঘটে, যা তখন 'ঠিকা গাড়ি' নামে পরিচিত ছিল।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের 'ঢাকা: স্মৃতি বিস্মৃতির নগরী-১' বই হতে জানা যায় যে, ১৮ শতকের প্রথম দিকে ঢাকায় বসবাসকারীদের মধ্যে আর্মেনীয়রা ছিলো অন্যতম প্রভাবশালী ও বণিক সম্প্রদায় এবং ১৮৫৬ সালে সিরকো নামীয় একজন আর্মেনীয়ই প্রথম ঢাকায় ঘোড়ার গাড়ির প্রচলন করেন।[১] ১৮৪৪ সালে প্রকাশিত 'ক্যালকাটা রিভিউতে' নানা ধরনের ঘোড়ার গাড়ির কথা উল্লেখ রয়েছে; যাতে ঢাকায় চলাচলকারী গাড়িগুলোকে 'ক্রাহাঞ্চি' বা 'ক্রাঞ্চি' গাড়ি ('কারাচি গাড়ি') বলা হয়েছে।[৩]

বর্তমানে ঢাকা শহরের বঙ্গবাজার, ফায়ার সার্ভিস, পশু হাসপাতাল, বকশীবাজার, নারিন্দা, সিদ্দিক বাজার, কেরানীগঞ্জ এলাকায় ৩৫ থেকে ৪০টি ও সদরঘাট থেকে গুলিস্তান রুটে ৩৩টি টমটম চলাচল করে।[১] অন্যদিকে রাজশাহী শহরে মাত্র ৬টি টমটম চলাচল করলেও[৪] রংপুর বিভাগের দুর্গম চরাঞ্চলে একমাত্র বাহন হিসাবে এগুলো বহুল সংখ্যক ব্যবহৃৎ হয়।[২]

গঠন[সম্পাদনা]

ব্যবহার[সম্পাদনা]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "পুরনো ঢাকায় পুরনো টমটম"www.kalerkantho.comইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড, ২৭ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. "চরাঞ্চলের একমাত্র বাহন ঘোড়ার গাড়ি"www.mzamin.comমানবজমিন, ৪ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. "জানা-অজানা: ঐতিহ্যবাহী ঘোড়ার গাড়ি"www.dailyjanakantha.comগ্লোব-জনকন্ঠ শিল্প পরিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  4. "বিলুপ্তির পথে রাজশাহীর ঘোড়ার গাড়ি"www.bdnews24.comবিডিনিউজ২৪ডটকম, ২২ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]